অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজে ওপেনিংয়ে মিঠুন!

0
36

messenger sharing button
pinterest sharing button
linkedin sharing button
print sharing button

সেটিই স্বাভাবিক। এ সফরে সেই নিয়মিত ওপেনার তামিম ইকবাল। ওপেনিংয়ে সফল ব্যাটসম্যান লিটন দাসও নেই। টপঅর্ডারের মি. ডিপেন্ডেবল মুশফিকুর রহিমও খেলছেন না।

তবে ওপেনিংয়ে কারা মিচেল স্টার্কের মতো পেসারকে মোকাবিলা করবেন?

সৌম্য সরকারের খেলা নিয়ে শঙ্কা জেগেছে। প্রথম টি-টোয়েন্টিতে এই স্টাইলিশ ওপেনারের খেলা অনিশ্চয়তায় পড়েছে।

এমন পরিস্থিতিতে বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের দিকেই চোখ পড়ার কথা। ওয়ানডাউনে খেলা এই অলরাউন্ডারকে দিয়ে ওপেনিংয়ে ভরসা করতে পারে যে কোনো দলের কোচ।

তবু সমস্যা রয়েই যাচ্ছে। ওপেনিংয়ে সাকিবের সঙ্গে জুটি বাঁধবে কে? নাঈম শেখ! কিন্তু এ ক্ষেত্রে হেড কোচ রাসেল ডমিঙ্গোর প্রথম পছন্দ মোহাম্মদ মিঠুনকে।

চূড়ান্ত না হলেও আগামী ৩ আগস্টে প্রথম ম্যাচে ওপেনিংয়ে মিঠুনকেও দেখা যেতে পারে বলে ইঙ্গিত দিলেন ডমিঙ্গো।

রোববার ভার্চুয়াল প্রেস কনফারেন্সে ডমিঙ্গো বলেন, ‘আমরা ওপেনার নিয়ে দীর্ঘ সময় ভেবেছি। সাকিব ওপেনিং স্পটের ভাবনায় আছে। মিঠুন দলে ফিরেছে। জানি সে একজন মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান, কিন্তু এই ফরম্যাটে সে ওপেনারের কাজও করতে পারবে। কোনো ওপেনার ইনজুরিতে পড়লে সে দায়িত্ব পালন করতে পারবে। এখন পর্যন্ত কোনো ওপেনার ইনজুরিতে পড়েনি। তবে কিছু হলে আমাদের কভার করার উপায় আছে।’

তবে ৩ তারিখের আগেই সৌম্য ও মোস্তাফিজসহ সবাই চোট কাটিয়ে উঠতে পারবেন বলে আশাবাদী ডমিঙ্গো।

টাইগারদের প্রোটিয়া কোচ বলেন, ‘দলে বড় কোনো চোটের শঙ্কা নেই। জিম্বাবুয়েতে সৌম্য যে চোটে পড়েছিল তার অনেকটাই কভার করেছে সে। আমি আশাবাদী সে এর মধ্যেই সুস্থ হয়ে উঠবে।’

প্রসঙ্গত, মিরপুরের শেরেবাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে সিরিজটি মাঠে গড়াবে আগামী ৩ আগস্ট থেকে। পরের চার ম্যাচ যথাক্রমে ৪, ৬, ৭ ও ৯ আগস্ট। এই সিরিজের সবকটি ম্যাচই শুরু হবে প্রতিদিন সন্ধ্যা ৬টা থেকে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে