অস্ত্র নয়, টাকা নিয়ে আফগানিস্তানে আসুন: তালেবান গভর্নর

0
14

সমগ্র প্রদেশের মতো আফগানিস্তানের হেলমান্দ প্রদেশও অর্থনৈতিক বিপর্যায়ের দ্বারপ্রান্তে। অন্যান্য তালেবান কর্মকর্তাদের মতো এই প্রদেশের গভর্নরও তালিব মৌলভিও পশ্চিমা বিশ্বের কাছে সহায়তার আহ্বান জানিয়েছেন।

গার্ডিয়ানের সঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে হেলমান্দ প্রদেশের এই গভর্নর ব্রিটিশ এবং ন্যাটো জোটকে উদ্দেশ্য করে বলেন, যুদ্ধের ময়দানে আমরা একে অন্যের মুখোমুখি হয়েছে। স্বাভাবিক সময়ে একে অন্যকে আমরা জানাশোনার সুযোগ পায়নি। এখন আপনারা তালেবান সরকারকে স্বীকৃতি দিয়ে আমাদের হৃদয়ে জায়গা নিতে পারেন, আফগানদের খুশি করতে পারেন। এ সময় তিনি বলেন, আফগানিস্তানে আসুন টাকা নিয়ে, অস্ত্র নিয়ে নয়।

গার্ডিয়ানের খবরে বলা হয়, গত ২০ বছরে আফগানিস্তানে নিহত ৪৫৭ ব্রিটিশ সেনার অধিকাংশই এই হেলমান্দ শহরে নিহত হয়েছে।

১৫ আগস্ট আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলের নিয়ন্ত্রণ নেয় তালেবান। এর আগে আফগান সরকারকে বিভিন্ন দেশ ও আন্তর্জাতিক সংস্থা অর্থ সাহায্য দিয়েছে। কিন্তু তালেবান ক্ষমতায় আসার পর দেশটিকে দেওয়া সাহায্য বন্ধ করে দেয় আন্তর্জাতিক মহল। মূলত মানবাধিকার ও নারী অধিকার ইস্যুতে তালেবানের যে অবস্থান, তা বদলাতেই এ চাপ দেওয়া হচ্ছে। কিন্তু এর প্রভাব পড়ছে সাধারণ আফগানদের ওপর।

আফগানিস্তানে খাদ্যসংকট নিয়ে সতর্কবার্তা দিয়েছে বিভিন্ন সংস্থা। জাতিসংঘের শিশু তহবিল ইউনিসেফের পক্ষ থেকে নতুন সতর্কবার্তা প্রদান করা হয়েছে। সংস্থাটির নির্বাহী পরিচালক হেনরিয়েটা ফোর বলেছেন, চলতি বছর ১০ লাখ আফগান শিশু চরম পুষ্টিহীনতায় ভুগতে পারে। তাদের খাবার ও সঠিক সেবার ব্যবস্থা না করা গেলে শিশুগুলো মারাও যেতে পারে।

তালেবানের নিয়োগপ্রাপ্ত হেলমান্দ প্রদেশের গভর্নর তালিব মৌলভি বলেন, যেসব দেশ আফগান ভূমিতে হানা দিয়ে আমাদের বৃদ্ধ, নারী ও শিশুদের হত্যা করেছে, আমাদের সকল কিছু ধ্বংস করেছে; এখন মানবিক বিবেচনায় শিক্ষা ব্যবসা-বাণিজ্য উন্নতির জন্য আফগানিস্তানে তাদের সহযোগিতা করা উচিত।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে